Amader Product

ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে? ফেসবুক না কি ই কমার্স ওয়েবসাইট

ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে?

আপনি হয়ত সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলেছেন যে, ই কমার্স বিজনে শুরু করবেন। বাট আপনার বিজনেসকে গ্রো করার জন্য ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে? ফেসবুক না কি ই কমার্স ওয়েবসাইট? তা নিয়ে পেরেশান। তাই আজকের প্রবন্ধটি আশা করি আপনার পেরেশানী দূর করবে। তাহলে চলুন আরম্ভ করি-

ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে? ফেসবুক না কি ই কমার্স ওয়েবসাইট

ফেসবুক পেইজ ভিত্তিক যে বিজনেসগুলো হয় সেগুলোকে কি  ই কমার্স বিজনেস বলাটা সঠিক? কোটি টাকার প্রশ্ন তাই না?  যেহেতু ই কমার্স বিজনেসটা বাংলাদেশে আবিষ্কার হয় নাই এবং সারা বিশ্বেই এই বিজনেস হচ্ছে তাই আমাদের নিজেদের ইচ্ছা মতন ডেফিনেশন দেয়ার সুযোগ নেই।

সারা বিশ্বে ই কমার্স বিজনেসের যে মডেল আমাদের দেশেও সেরকম হলে আমরা বলতে পারবো আমরা সঠিক ভাবে ই কমার্স বিজনেস করছি।  দু:খজনক হলেও সত্যি আমরা সঠিক ই কমার্স মডেলে কাজ করছি না। কেউই করছি না বললে ভুল হবে তবে বেশিরভাগই করছি না এটা বলা যেতে পারে।

এখন প্রশ্ন হলো, আমাদের ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে? ফেসবুক না কি ই কমার্স ওয়েবসাইট? আমরা কেন ই কমার্সে সঠিক মডেলে না গিয়ে ফেসবুক কে ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম হিসেবে নির্বাচন করলাম যেখানে ফেসবুক একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এবং ই-কমার্স বিজনেসেকে বুস্ট করার জন্য একটি খুবই কার্যকরী মার্কেটিং চ্যানেল কিন্তু অবশ্যই ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক নয়।

 

তাহলে ই কমার্সের সঠিক মডেল ই কমার্স সাইটের মাধ্যমে যেটা করা হয় সেদিকে আমরা গেলাম না কেন এবং যাচ্ছি না কেন?  যারা উদ্যোক্তা তাদের কোনভাবেই দোষ দিতে আমি রাজি নই, তাদেরকে যেমন বুঝানো হয়েছে তারা সেটাই বুঝেছে আর সেটাই স্বাভাবিক। এখন কেন তাদের ফেসবুকই হচ্ছে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম বুঝানো হয়েছে সেটা আমি ক্লিয়ার না, হতে পারে যারা বুঝিয়েছে তারাও ঠিক মতন বুঝে নাই।

এখন যেটা হয়েছে, যারা এক সময় ফেসবুক কে ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করতে উৎসাহ দিয়েছে এখন তারাই ই কমার্স ওয়েবসাইটের কথা বলছে কিন্তু লাভ তেমন হচ্ছে না। এর কারন কী? একটি ই কমার্স সাইট সামলানো আর একটি ফেসবুক পেইজ খুলে কিছু পোস্ট বুস্ট করে বিজনেস করার মধ্যে অনেক পার্থক্য। ফেসবুক প্ল্যাটফর্ম তুলনামূলক ভাবে অনেক সহজ।

 

যেমন সহজ যারা বিজনেস করছেন তাদের জন্য তেমন সহজ যারা কাস্টমার তাদের জন্য। তাই ফেসবুকেই সব কিছু করার একটা ট্রেন্ড তৈরি হয়েছে যা কি না সহজে ভেংগে ফেলা যাচ্ছে না কিন্তু সহজ থেকে একটু কঠিনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত না নেওয়া ক্রেতাদের জন্য সমস্যা না হলেও বিক্রেতাদের জন্য ধীরে ধীরে সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে আর সামনে এটা বিরাট সমস্যার তৈরি হবে বলে আমার ধারনা। ইতিমধ্যে তৈরি হয়েও গেছে।

 

ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে?  ফেসবুক বেছে নেওয়ায় কেমন সমস্যা হচ্ছে? ওয়েবসাইট ভিত্তিক বিজনেসে আপনি অনেক ডাটা এনালাইসিস করে কাজ করতে পারবেন যা কি না ফেসবুকে সম্ভব নয়। মজার ব্যাপার হলো ফেসবুক এমন কিছু ফিচার রেখেছে যেখানে ফেসবুকের সাথে ওয়েবসাইট কানেক্ট করে কাজ করা যায়।  এর কারন কী জানেন? কারন ফেসবুক নিজেও জানে তারা ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম না, মার্কেটিং চ্যানেল। আর কাজগুলো ডাটাভিত্তিক না হবার কারনে অনেক টাকা নষ্ট হচ্ছে, অনেকের বিজনেস বন্ধ হচ্ছে।

ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে ফেসবুক না কি ই কমার্স ওয়েবসাইট
                 ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে 

ফেসবুক বিভিন্ন পলিসি ভায়োলেশনের জন্য বিজনেস পেইজকে অ্যাড রেস্ট্রিকটেড করে দেয় তাহলে সে পেইজ থেকে আর অ্যাড দেয়া যায় না।  আর বিজনেসে কোন ওয়েবসাইট না থাকার কারনে বিজনেস সম্পুর্ন বন্ধ হয়ে যায়, ওয়েবসাইটের থাকলে কিছুদিন অন্তত অন্য মার্কেটিং চ্যানেলে অ্যাড দিয়ে বিজনেস চালু রাখা যায়।

 

ওয়েবসাইট থাকলে আপনি ফেসবুকে একদম পারচেজ অ্যাড দিতে পারেন, যার ফলে ফেসবুক এমন অডিয়েন্স ফেসবুক থেকে খুঁজে বের করে যারা ওয়েবসাইট থেকে কেনাকাটা করে থাকে, সে ক্ষেত্রে অ্যাডের রেজাল্ট ভালো আসার সম্ভাবনা থাকে। ম্যাসেজ অ্যাডে ফেসবুক এমন অডিয়েন্সকে অ্যাড দেখায় যারা সাধারনত ম্যাসেজ করে থাকে বিভিন্ন পেইজে। আরও পড়ুনঃ ৫ টি সেরা অনলাইন বিজনেস আইডিয়া

 

বিভিন্ন পেইজে ম্যাসেজ করা অডিয়েন্স আর বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে পারচেজ করা অডিয়েন্সে কিন্তু অনেক পার্থক্য।  বুঝতেই পারছেন সঠিক মডেলে না যাওয়ার ফলে আপনাকে যেমন বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখিন হতে হচ্ছে ঠিক একই ভাবে আপনি অনেক কার্যকর ফিচারের সুবিধা নিতে পারছেন না।

 

আমাদের পাশের দেশ ভারত পিন্টারেস্ট প্ল্যাটফর্মে প্রচুর পরিমান মার্কেটিং করে থাকে, সেখানে ছবির সাথে ওয়েবসাইট লিংক করে দেয়া যায়, অডিয়েন্স সেখান ওয়েবসাইটে গিয়ে পারচেজ করে। আমি নিজে লক্ষ্য করেছি একদম ছোট কোম্পানি, একটা প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করে কিন্তু তাদেরও ছোট হলেও একটা ই কমার্স সাইট আছে।

 

সব শেষে বলবো, ই কমার্স প্লাটফর্ম কোনটি বেছে নিতে হবে? ফেসবুক না কি ই কমার্স ওয়েবসাইট? মনে রাখবেন, যে কাজ যেখানে সেখানেই করা উচিত। ফেসবুক মার্কেটিং চ্যানেল,ফেসবুকে আপনার বিজনেসের মার্কেটিং হোক, কিন্তু ই কমার্স প্ল্যাটফর্মের জায়গাটা হচ্ছে ওয়েবসাইট। বলতে পারেন ওয়েবসাইট থেকে অর্ডার  আসে না, আমি বলবো অর্ডার আনার কৌশল জানা থাকলে অর্ডার আসবে। আর আমি যেটা প্রায়ই বলি আপনার ই কমার্স সাইট থেকে যদি একটা অর্ডারও না আসে তারপরও আপনার একটি ওয়েবসাইট দরকার ওয়েবাসাইট মার্কেটিং টুল হিসেবেও কাজ করব। আরও জেনে নিনঃ সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর 6 সি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
Twitter
LinkedIn

রিলেটেড আর্টিকেল

মুফতি রেজাউল করিম

ওয়েব ডিজাইনার

আসসালামু আলাইকুম। আমি একজন ওয়েব সাইট ডিজাইনার। আপনার বাজেটের মধ্যে সেরা সার্ভিস দেয়ার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ।

Divider
Sponsor
বিড়ালের নখের আঁচড় কি বিপজ্জনক?

বিড়ালের নখের আঁচড় কি বিপজ্জনক? জরুরী পরামর্শ

আমরা অনেকেই শখের বসে বিড়াল পুষি। তবে এ বিড়াল আপনার জন্য অনেক সমস্যার কারণ হতে পারে। আজ আলোচনা করব, বিড়ালের নখের আঁচড় কি বিপজ্জনক? জরুরী

Read More
ঈদের শুভেচ্ছা পোস্টার ডিজাইন

ঈদের শুভেচ্ছা পোস্টার ডিজাইন- 2024

আসসালামু আলাইকুম। আজ আলোচনা করব, কীভাবে আপনারা নিজেরাই ঈদের শুভেচ্ছা পোস্টার ডিজাইন করতে পারবেন তা নিয়ে। অনেকেই চান যে, সামনে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আপনার বন্ধু

Read More